রাজশাহী

রাবির সাবেক ১৮ শিক্ষার্থী হলেন সংসদ সদস্য

নগর খবর ডেস্ক : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) সাবেক ১৮ জন শিক্ষার্থী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। তাদের মধ্যে রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগেরই ৬ জন সাবেক শিক্ষার্থী রয়েছেন। নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার পর বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে এখন পর্যন্ত ১৮ জন সাবেক শিক্ষার্থীর সাংসদ নির্বাচিত হওয়ার তথ্য পাওয়া গেছে।

সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়া রাবির সাবেক শিক্ষার্থীরা হলেন, শামসুল হক টুকু (পাবনা-১), শফিকুর রহমান বাদশা (রাজশাহী-২), আব্দুল ওয়াদুদ দারা (রাজশাহী-৫), নারায়ণ চন্দ্র (খুলনা-৫), বীর বাহাদুর উশৈ সিং (বান্দরবান), অধ্যক্ষ মো. আবুল কালাম আজাদ (রাজশাহী-৪), বীরেন শিকদার (মাগুরা-২), আহমেদ ফিরোজ কবির (পাবনা-২), শামসুল আলম দুদু (জয়পুরহাট-১), ওমর ফারুক চৌধুরী (রাজশাহী-১), আব্দুল হাই (ঝিনাইদহ-১), সৌরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তী (নওগাাঁ-৩), অ্যাডভোকেট আবুল কালাম আজাদ (নাটোর-১), তাহমিনা বেগম (মাদারীপুর-৩), খালিদ মাহমুদ চৌধুরী (দিনাজপুর-২), অধ্যক্ষ আবুল কালাম আজাদ (গাইবান্ধা-৪), মোস্তাফিজুর রহমান ফিজার (দিনাজপুর-৫), এনামুল হক বাবুল (যশোর-৪)।

তাদের মধ্যে শফিকুর রহমান বাদশা (রাজশাহী-২), বীর বাহাদুর উশৈসিং এম.পি (বান্দরবান), সৌরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তী (নওগাঁ-৩), অ্যাড. আবুল কালাম আজাদ (নাটোর-১), তাহমিনা বেগম (মাদারীপুর-৩), এবং নারায়ণ চন্দ্র চন্দ (খুলনা-৫) রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী ছিলেন।

সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়া রাবির সাবেক শিক্ষার্থীরা হলেন, শামসুল হক টুকু (পাবনা-১), শফিকুর রহমান বাদশা (রাজশাহী-২), আব্দুল ওয়াদুদ দারা (রাজশাহী-৫), নারায়ণ চন্দ্র (খুলনা-৫), বীর বাহাদুর উশৈ সিং (বান্দরবান), অধ্যক্ষ মো. আবুল কালাম আজাদ (রাজশাহী-৪), বীরেন শিকদার (মাগুরা-২), আহমেদ ফিরোজ কবির (পাবনা-২), শামসুল আলম দুদু (জয়পুরহাট-১), ওমর ফারুক চৌধুরী (রাজশাহী-১), আব্দুল হাই (ঝিনাইদহ-১), সৌরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তী (নওগাাঁ-৩), অ্যাডভোকেট আবুল কালাম আজাদ (নাটোর-১), তাহমিনা বেগম (মাদারীপুর-৩), খালিদ মাহমুদ চৌধুরী (দিনাজপুর-২), অধ্যক্ষ আবুল কালাম আজাদ (গাইবান্ধা-৪), মোস্তাফিজুর রহমান ফিজার (দিনাজপুর-৫), এনামুল হক বাবুল (যশোর-৪)।

তাদের মধ্যে শফিকুর রহমান বাদশা (রাজশাহী-২), বীর বাহাদুর উশৈসিং এম.পি (বান্দরবান), সৌরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তী (নওগাঁ-৩), অ্যাড. আবুল কালাম আজাদ (নাটোর-১), তাহমিনা বেগম (মাদারীপুর-৩), এবং নারায়ণ চন্দ্র চন্দ (খুলনা-৫) রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী ছিলেন।

রাবির রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. সুলতান মাহমুদ রানা এ প্রসঙ্গে বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য এটি বিশেষ পাওয়া। এখনও পর্যন্ত যে ১৮ জন সাবেক শিক্ষার্থী সংসদ সদস্য নির্বাচিত হলেন তারা বিশ্ববিদ্যালয়কে রিপ্রেজেন্ট করবে। রাবি শিক্ষা, রাজনীতি, সংস্কৃতি প্রত্যেকটি বিষয়ই এগিয়ে যাচ্ছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র রাজনীতি থেকে শুরু করে জাতীয় রাজনীতির যে ক্রম ধারাবাহিকতা, সেটির একটি উল্লেখযোগ্য বহিঃপ্রকাশ এটির মাধ্যমে ঘটেছে বলে আমি মনে করি।

নবনির্বাচিত সংসদ সদস্যদের অভিনন্দন জানিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. গোলাম সাব্বির সাত্তার বলেন, এই ১৮ জন সংসদ সদস্য এখন শুধু রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গর্ব না, তারা এখন পুরো জাতির গর্ব। তাদের যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে সহায়ক হবে বলে আমি বিশ্বাস করি। এসময় তাদের উত্তরোত্তর সফলতা কামনা করেন।

Back to top button