পৌর মেয়রকে ধরিয়ে দিলে লাখ টাকা পুরস্কার » নগর খবর
  1. jahid.raj24@gmail.com : Jahid :
  2. mamun@gmail.com : mamun :
  3. ms2120524@gmail.com : Mridul :
  4. nogorkhobor@gmail.com : nogorkhobor@admin :
  5. parish@gmail.com : parish :
  6. parvaje01842@gmail.com : নগর ডেস্কঃ :
  7. rumonahamed442@gmail.com : Rumon Ahamed : Rumon Ahamed
  8. sagor.hosaain2@gmail.com : sagor.hasaain :
পৌর মেয়রকে ধরিয়ে দিলে লাখ টাকা পুরস্কার » নগর খবর
বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০১:৩৮ অপরাহ্ন
নগর খবর শিরোনামঃ

পৌর মেয়রকে ধরিয়ে দিলে লাখ টাকা পুরস্কার

  • নগর ডেস্ক
    নগর খবর
    আপডেটের সময় : মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর, ২০২১

বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল নির্মাণ নিয়ে কটূক্তি ও বিতর্কিত মন্তব্য করা কাটাখালি পৌরসভার মেয়রের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হয়েছে। মামলার গ্রেপ্তার এড়াতে পলাতক পৌর মেয়র আব্বাস আলী।

এবার তাকে ধরিয়ে দিতে এক লাখ টাকা পুরস্কার ঘোষণা করেছেন ওই পৌরসভার সাবেক কাউন্সিলর খোকনুজ্জামান মাসুদ।

সোমবার (২৯ নভেম্বর) সন্ধ্যায় পৌরসভার ৪ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর মো. খোকনুজ্জামান মাসুদ পুরস্কার ঘোষণার বিষয়টি আরটিভি নিউজকে নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, মেয়র আব্বাস বঙ্গবন্ধুকে কটূক্তি করে চরম অন্যায় করেছেন। এ জন্য তাকে শাস্তি পেতে হবে। সে পৌর মেয়র হওয়ার পর থেকেই বেপরোয়া হয়ে ওঠে। দুর্নীতি ও স্বেচ্ছাচারিতার কারণে অতিষ্ঠ পৌরবাসী।

তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কটূক্তির পর কাপুরুষের মতো গা ঢাকা দিয়েছেন। তাকে ধরার জন্য এক লাখ টাকা পুরস্কার ঘোষণা করেছি।

জানা গেছে, সাবেক পৌর কাউন্সিলর মো. খোকনুজ্জামান মাসুদ একজন ব্যবসায়ী। ২০১৫ সালের পৌর নির্বাচনে কাউন্সিলর হওয়ায় যুবলীগের পদ ছেড়েছেন তিনি। ২০২০ সালে তিনি কাটাখালী নির্বাচনে আব্বাসের প্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে মেয়র পদে নির্বাচন করেন। ওই নির্বাচনে তিনি ৩৬ ভোট পান।

এদিকে,রাজশাহী সিটি করপোরেশনের (রাসিক) ১৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবদুল মমিনের দায়েরকৃত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় যেকোনো সময় গ্রেপ্তার হতে পারেন বিতর্কিত মেয়র আব্বাস আলী।

অন্যদিকে রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকেও তার বিরুদ্ধে আরেকটি মামলার প্রস্তুতি চলছে। এ জন্য রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের আইনবিষয়ক সম্পাদকসহ পাঁচ আইনজীবীকে পৌর মেয়র আব্বাসের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

রাজশাহী বোয়ালিয়া মডেল থানার ওসি নিবারণ চন্দ্র বর্মণ আরটিভি নিউজকে বলেন, ইতোমধ্যে আমরা পৌর মেয়র আব্বাসকে ধরতে গোয়েন্দা তৎপরতা বৃদ্ধি করেছি।

গত ২৬ নভেম্বর বিকেলে অজ্ঞাত স্থান থেকে ফেসবুক লাইভে আসেন পৌর মেয়র সেখানে তিনি বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল করলে পাপ হবে’ এ কথা স্বীকার করেন। প্রায় ২০ মিনিটের ফেসবুক লাইভে তিনি বলেন এক বড় হুজুরের আপত্তির কারণে এসব মন্তব্য করেছিলেন। এজন্য তিনি অনুতপ্ত ও ক্ষমাপ্রার্থী।

উল্লেখ্য, বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল নিয়ে গত সোমবার (২২ নভেম্বর) রাত থেকে পৌর মেয়র আব্বাসের কটূক্তিমূলক বক্তব্য অডিও রেকর্ড সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। ১ মিনিট ৫১ সেকেন্ডের অডিও ক্লিপে মেয়র আব্বাসকে বলতে শোনা যায়, ওই গেটটি দ্রুত নির্মাণ হবে। তবে আমরা যে ফার্মকে কাজটি দিয়েছি, তারা গেটের ওপরে বঙ্গবন্ধুর যে ম্যুরাল বসানোর ডিজাইন দিয়েছে, সেটি ইসলামি দৃষ্টিতে সঠিক না। তাই আমি সেটিকে বাদ দিতে বলেছি।


এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, nogorkhobor@gmail.com ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন NogorKhobor আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

এই বিভাগের আরও খবর

আমাদের লাইক পেজ

Facebook Pagelike Widget