রাজশাহীতে ঈদের কেনাকাটায় রাতে জমজমাট নগরীর মার্কেট ও ফুটপাত » নগর খবর
  1. jahid.raj24@gmail.com : Jahid :
  2. mamun@gmail.com : mamun :
  3. ms2120524@gmail.com : Mridul :
  4. nogorkhobor@gmail.com : nogorkhobor@admin :
  5. parish@gmail.com : parish :
  6. parvaje01842@gmail.com : নগর ডেস্কঃ :
  7. rumonahamed442@gmail.com : Rumon Ahamed : Rumon Ahamed
  8. sagor.hosaain2@gmail.com : sagor.hasaain :
রাজশাহীতে ঈদের কেনাকাটায় রাতে জমজমাট নগরীর মার্কেট ও ফুটপাত » নগর খবর
বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০২:৫৬ অপরাহ্ন
নগর খবর শিরোনামঃ

রাজশাহীতে ঈদের কেনাকাটায় রাতে জমজমাট নগরীর মার্কেট ও ফুটপাত

  • নগর ডেস্ক
    নগর খবর
    আপডেটের সময় : সোমবার, ২৫ এপ্রিল, ২০২২

জৌষ্ঠ প্রতিবেদক : সারাদিনের তাপদাহের পর রাজশাহীতে রাতে নেই গরমের ভাব, নেই ক্লান্তি। ইফতার শেষে রমজানের শেষ এই কয়েকটি দিনে বাজারে ক্রেতাদের আনাগোনা থাকছে বেশি। রাত ৮ টা থেকে শুরু করে গভীর রাত পর্যন্ত ক্রেতা বিক্রেতাদের বেচাকেনায় জমজমাট থাকছে নগরীর মার্কেট ও ফুটপাত ।

রবিবার (২৪ এপ্রিল) নগরীর বাজার গুলোতে অধিক ভিড় দেখা গেছে। নগরীর সাহেব বাজার, নিউমার্কেট, থিম ওমর প্লাজা, উপশহর নিউ মার্কেট, কোর্ট বাজারসহ বিভিন্ন বিপণিবিতানগুলোতে ক্রেতাদের ভিড় ক্রমেই বাড়তে দেখা গেছে।
এদিকে দুই বছর করোনার কারণে কঠিন সময় পার করে ভালো বিক্রির আশা এবার ব্যবসায়ীদের।

সিয়াম ফ্যাশন হাউজ থেকে দোকান মালিক সিয়াম বলেন, ‘গত দুই বছর ঈদের সময় লকডাউন আর বিধিনিষেধ ছিলো। এবার করোনা নিয়ন্ত্রণে আছে। আশা করি, ভালো কেনাবেচা হবে। এ বছর ঈদে পাঞ্জাবি, শার্ট, প্যান্টের চাহিদা ভালোই । ইদ এলে সকল ধর্মের ক্রেতারা ভিড় করছেন বাজারে। কারন, উৎসব এলে ভিন্ন ও নতুন নকশা করা কাপড়গুলো বাজারে আসে। এবছর বিভিন্ন ডিজাইনের পাঞ্জাবির মধ্যে রয়েছে ইন্ডিয়ান ব্রাশু, গুটি ও টিস্যু। তবে বেশি চলছে কাবলি। পাশাপাশি গেঞ্জি, শার্ট-প্যান্টও কিনছেন অনেকে।’

রূপালী শাড়ি ঘরের বিক্রেতা চাঁদ জানান, প্রতি বছর ইদে ভারতীয় সিরিয়ালের নামে পোশাক চান ক্রেতারা। তবে এ বছর নতুন এসেছে কাঁচা বাদাম থ্রি পিস, পুষ্পা থ্রি পিস, সরারা ও গারারা। তবে বেশি চলছে স্কার্ট ও ফ্রক।

এদিকে মহিলাদের জামা কাপড়ের পর প্রথম চাহিদায় থাকে কসমেটিক্স। আরডিএ মার্কেটের কসমেটিক্স ব্যাবসায়ী আরাফাত বলেন, ‘ঈদ উপলক্ষে আধুনিক সব প্রসাধনী দোকানে তুলেছি। ক্রেতাদের চাহিদা পূরণে হিমশিম খেতে হচ্ছে। সকালের পাশাপাশি সন্ধ্যার পর ব্যাপক ক্রেতা সাড়া মিলছে ক্রেতাদের।’

পরিবারের জন্য কেনাকাটা করতে আসা সাদিয়া সুলতানা স্নেহা বলেন, ‘দুপুরে এসেছি কেনাকাটা করতে। ফিরতে সন্ধ্যা হবে। বিগত কয়েক ঈদে মার্কেটে আসতে পারিনি। ইদে পরিবারের জন্য কেনাকাটা করার মজাই আলাদা। এবার যেহেতু করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে, তাই স্বচ্ছন্দে মার্কেটে এসেছি। পরিবারের সবার জন্য কেনাকাটা করবো।’


এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, nogorkhobor@gmail.com ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন NogorKhobor আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

এই বিভাগের আরও খবর

আমাদের লাইক পেজ

Facebook Pagelike Widget