চা শ্রমিকদের মজুরি ৩০০ টাকা বৃদ্ধির দাবি » নগর খবর
  1. jahid.raj24@gmail.com : Jahid :
  2. mamun@gmail.com : mamun :
  3. ms2120524@gmail.com : Mridul :
  4. nogorkhobor@gmail.com : nogorkhobor@admin :
  5. parish@gmail.com : parish :
  6. parvaje01842@gmail.com : নগর ডেস্কঃ :
  7. rumonahamed442@gmail.com : Rumon Ahamed : Rumon Ahamed
  8. sagor.hosaain2@gmail.com : sagor.hasaain :
চা শ্রমিকদের মজুরি ৩০০ টাকা বৃদ্ধির দাবি » নগর খবর
শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৫:৫৫ অপরাহ্ন
নগর খবর শিরোনামঃ

চা শ্রমিকদের মজুরি ৩০০ টাকা বৃদ্ধির দাবি

  • নগর ডেস্ক
    নগর খবর
    আপডেটের সময় : শনিবার, ২৭ আগস্ট, ২০২২

চা শ্রমিকদের মজুরি ন্যূনতম ৩০০ টাকা বৃদ্ধির দাবি জানিয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) শিক্ষার্থীরা। আজ শনিবার বেলা ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের বুদ্ধিজীবী স্মৃতি ফলকে ‘জালালাবাদ স্টুডেন্টস অ্যাসোসিয়েশন’ বৃহত্তর সিলেটের আয়োজনে এক মানববন্ধন কর্মসূচিতে এ দাবি জানানো হয়।

কর্মসূচিতে ‘বাঁচতে হলে দেশের অর্থনীতি, বাড়াতে হবে চা শ্রমিকদের মজুরি’, ‘বাগান ভরা চায়ের পাতা, পেট ভরে না পাই যে ভাতা’, ‘লতা-পাতা ব্যাঙের ছাতা খাই’, ‘রক্ত ঘামের লাভের পাতা হাঙর পেটে যায়’, ‘বৈষম্য নিপাত যাক, ৩০০ টাকা মজুরি পাক’, ‘দুটি পাতা একটি কুড়ি, মজুরি চাই ১৫ কুড়ি’ লেখা সম্বলিত বিভিন্ন প্রতিবাদী প্ল্যাকার্ড দেখা যায়।

কর্মসূচিতে শিক্ষার্থীরা বলেন, সিলেটের চা শ্রমিকদের আধুনিক যুগের জীবন্ত ক্রীতদাস বললেও ভুল হবে না। তারা নিয়মিত খাদ্য চাহিদা পূরণ করতে পারে না। তাদের শিক্ষা ও চিকিৎসা থেকে বঞ্চিত করা হচ্ছে। প্রাথমিক বিদ্যালয় নেই, তাদের প্রায় সব ধরনের মৌলিক অধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

শিক্ষার্থীরা আরও বলেন, একবিংশ শতাব্দীতে এসেও একজন চা শ্রমিকের মজুরি ১২০ টাকা—এটা দুঃখজনক। ১২০ টাকা দিয়ে দুই বেলা ভাত খাওয়া সম্ভব নয়। অসংখ্য শ্রমিক না খেয়ে কাজ করতে যায়। অনেক শ্রমিক ১২০ টাকাও মজুরি পায় না। দিনে ২৪ কেজি চা না তুলতে পারলে মজুরি ১২০ টাকারও কম দেওয়া হয়। ভারতে চা শ্রমিকদের মজুরি ৪০০ থেকে ৫০০ টাকা, এমনকি পঞ্চগড়েও ৫০০ থেকে ৭০০ টাকা শ্রমিকের মজুরি। সেখানে সিলেটের চা শ্রমিকদের দেওয়া হয় মাত্র ১২০ টাকা। বর্তমান প্রেক্ষাপটে চা শ্রমিকদের জন্য ৩০০ টাকা ন্যায্য মজুরির দাবি জানাই। আমাদের অর্থনীতির অন্যতম উৎস এ চা খাতকে উন্নতি করতে হলে শ্রমিকের অধিকার নিশ্চিত করতে হবে।

ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র কামিল আহমদের সঞ্চালনায় কর্মসূচিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের অর্ধশতাধিক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।


এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, nogorkhobor@gmail.com ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন NogorKhobor আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

এই বিভাগের আরও খবর

আমাদের লাইক পেজ

Facebook Pagelike Widget