বিয়ের পর ভাগ্য ফিরেছে আমার

বিয়ের পর ভাগ্য ফিরেছে আমার

  ০৮ অক্টো ২০২১

 

প্রায় চার বছর পর ধারাবাহিক নাটকে অভিনয় করলেন সাবিলা নূর। গতকাল এনটিভিতে দেখানো হলো সেই ধারাবাহিক নাটক হাউস নং ৯৬-এর শততম পর্ব। নাটকে এক চাপাবাজ তরুণীর চরিত্রে দেখা গেছে তাঁকে। ক্যারিয়ার, দুই বছরের সংসার ও ব্যক্তিগত নানা প্রসঙ্গে কথা বললেন এই অভিনেত্রী।

দীর্ঘদিন পর ধারাবাহিক নাটকে অভিনয় করলেন। শুরুতে তো ধারাবাহিকে অভিনয় করতেন, এখন করেন না কেন?
আমি তিন-চারটি ধারাবাহিকে অভিনয় করেছি। পরে আর আমাকে টানেনি। ধারাবাহিকে শুটিং, চরিত্র, গেটআপ, সেটের ধারাবাহিকতা ধরে রাখা সম্ভব হয় না। এগুলো এলোমেলো মনে হতো। এসব কারণেই ধারাবাহিকে অভিনয়ের আগ্রহ পাইনি।

কেন মনে হলো চাপাবাজ ধরনের চরিত্রটি ফুটিয়ে তুলতে পারবেন? নাটকটির নির্মাতা মাহমুদুর রহমান হিমি বলেন, আমিই চরিত্রটি ফুটিয়ে তুলতে পারব। তাঁর নির্মাণে অনেকগুলো নাটকে কাজ করেছি। পরে মনে হলো, কমেডি, চাপাবাজির চরিত্রে দর্শক আমাকে ভালোভাবে নেন। আসলে ব্যক্তিজীবনে আমি এই চরিত্রের একদম উল্টো।

সম্প্রতি প্রচারিত আপনার ‘সদা সত্য কথা বলিব’ নাটকটি দর্শক হিসেবে দেখে কী মনে হয়েছে? আমি দর্শক হিসেবে আমার অভিনয় দেখি না। আমার চরিত্রের ভালো-মন্দ বুঝতে পারি না হয়তো। আমার মা-বাবা-ভাই, তাঁরা নিয়মিত আমার নাটক দেখেন। তাঁরাই আমার অভিনয়ের সমালোচনা করেন। তখন মনে হয়, কিছু দৃশ্যে আরও ভালো অভিনয় করতে পারতাম। তবে এই নাটকে অপূর্ব ভাইয়ের অভিনয় আমার কাছে দারুণ লেগেছে।

হতে চেয়েছিলেন নৃত্যশিল্পী, হলেন অভিনেত্রী, নাচে কি ফেরার ইচ্ছা আছে? আমার মায়ের ইচ্ছাতেই সাড়ে তিন বছর বয়স থেকে নাচ শিখি। পরে নাচতে ভালো লাগত। ইচ্ছা ছিল টেলিভিশনে নাচব। কিন্তু সেই ধরনের প্রোগ্রাম কম হয়। এ জন্য নাচা হয় না। ইচ্ছা আছে, নিজ উদ্যোগে নাচ নিয়ে অনুষ্ঠান করব।

অনেকেই বলেন আপনি সহজেই নায়িকা হয়ে গেছেন?ফেসবুকের কারণে হয়তো কিছু প্রিভিলেজ পেয়েছি। কিন্তু অনেকে মনে করেন সহজেই নায়িকা হইনি। শুরু থেকেই আমাকে কম্পিটিশন করতে হয়েছে। এখন অনেক কাজ হচ্ছে। ভালো কাজ করে নিজেকে প্রমাণ করা কঠিন। এত কাজের মধ্যে দর্শকদের পছন্দে তালিকায় থাকা আমার কাছে কঠিন মনে হয়। এ জন্য সব সময় অনেক পরিশ্রম করতে হয়েছে।

অভিনয় করতে গিয়ে কখনো কোনো বাধার মুখে পড়তে হয়েছে?টুকটাক আপস অ্যান্ড ডাউন সবার জীবনেই থাকে। কখনো সহকর্মীদের কাছ থেকে, কখনো অন্যদের কাছ থেকে কথা শুনে মন খারাপের মতো ঘটনা ঘটেছে, রাগ হয়েছে। কিন্তু কখনোই মনে হয়নি গিভ আপ করব। সাবিলা নূর

প্রায় দুই বছর হলো বিয়ে করেছেন, সংসার কেমন চলছে? বিয়েটা আমার জন্য আশীর্বাদ হিসেবে কাজ করেছে। ২০১১ সালে কাজ শুরু করার পর আমার মা-বাবা-ভাই-বোন সাপোর্ট করেছেন। এই শেষ দুই বছর আমার হাজব্যান্ড আমাকে অনেক সাপোর্ট করেছে। সব সময় সে আমার ভালো চায়। তাকে নিয়ে আমার কোনো অভিযোগ নেই। তার একটাই অভিযোগ, সময় কম দিই।
সাবিলা নূর

কখনো কি মনে হয়েছিল যে বিয়ের পর ক্যারিয়ার পড়ে যেতে পারে? বিয়ের পর ক্যারিয়ার পড়ে যাওয়ার ভয় ছিল। কারণ, আশপাশের সবাই বলছিল, বিয়ের পরে মোটা হয়ে যাব, সংসার সামলাতে হবে, সময় কম পাব, মানসিক পরিবর্তন আসবে। সেদিক দিয়ে দুই বছর পরে বলব, আমি অনেক ভাগ্যবান। আমার শুভাকাঙ্ক্ষী, ফ্যানরাও বলেন, শেষ দুই বছরে অনেক চ্যালেঞ্জিং গল্পে অভিনয়ের সুযোগ পেয়েছি। এখন অনেকের কাছ থেকেই শুনতে হয়, বিয়ের পরে ভাগ্য ফিরেছে (হাসি)। আমার কাছে মনে হয়, বিয়ের পর আমার ক্যারিয়ারের সুদিন পার করছি।সাবিলা নূর গত বছর কষ্টনীড় সিরিজে অভিনয় করেছিলাম। আবার কাজ করব। বলা নিষেধ। এখন নিয়মিত নাটকই করছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *