নীলফামারী

চিরকুট লিখে শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা!

নীলফামারীর সৈয়দপুরে রেললাইনে দ্বিখণ্ডিত অবস্থায় এক শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে একটি চিরকুট পাওয়া গেছে।

রবিবার (৪ ডিসেম্বর) দুপুরে সৈয়দপুর ওয়াবদা মোড় রেলঘুন্টি এলাকায় থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

নিহত ব্যক্তি সৈয়দপুর উপজেলার সোঁনাখুলি বোতলাগাড়ি গ্রামের শ্রী সাগর রায়ের ছেলে শ্রী শান্ত রায় (১৭)। তিনি সৈয়দপুর বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড উচ্চবিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিলেন।

পুলিশ জানায়, রোববার দুপুরে রাজশাহী-চিলাহাটি রুটের চিলাহাটিগামী তিতুমীর এক্সপ্রেস ট্রেনে ঘটনাটি ঘটে। রবিবার সকালে কাউকে কিছু না বলে বাড়ি থেকে বের হয়ে যায় শান্ত। পরে দুপুরে রেললাইনে দ্বিখণ্ডিত অবস্থায় তার মরদেহ দেখতে পেয়ে পুলিশে সংবাদ দেন স্থানীয়রা। এদিকে পুলিশ এসে মরদেহ উদ্ধার করে। এ সময় তার মরদেহের পাশে একটি চিরকুট পাওয়া যায়। চিরকুটে লেখা ছিলো ‘কেউ আমার লাশ পাইলে ফোন দিয়েন বাসায়’। চিরকুটটিতে তার বাবার মোবাইল নম্বরও দেয়া রয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, শান্ত সবার কাছে হাসিখুশি ছেলে হিসেবে পরিচিত ছিলো। আগামী বছর এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করার কথা ছিলো তার।

সৈয়দপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শফিউল ইসলাম জানান, রবিবার দুপুরে সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এ সময় ঘটনাস্থলে একটি চিরকুট পাওয়া গেছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে শান্ত আত্মহত্যা করেছে। স্থানীয় লোকজন ও পরিবারের সঙ্গে কথা বলে ঘটনার কারণ জানার চেষ্টা করছি।

তিনি আরো বলেন, আত্মহত্যার করার মতো কোনো বিষয় ঘটেনি বলে তারা জানিয়েছেন। শান্ত সবসময় হাসিখুশি ছিলো। তিনি স্কুলের এসএসসি মডেল টেস্ট পরীক্ষায় তৃতীয় স্থান লাভ করেন। কী কারণে শান্ত আত্মহত্যা করেছে, তা এখনো জানা যায়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button